ব্লু হোয়েলের ফাঁদে পাকিস্তানের তরুণ-তরুণীরাও

রাশিয়া-ভারতের মতো প্রযুক্তি নির্ভর সুইসাইড গেম ‘ব্লু হোয়েলের ফাঁদে পড়েছে পাকিস্তানি তরুণ-তরুণীরাও। দেশটির ‘সামা টিভি’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।
ব্লু হোয়েল চ্যালেঞ্জ গেমের ফাঁদে পড়ে পাকিস্তানের বেশ কয়েকজন তরুণ-তরুণী আহত হয়েছেন।

তাদের দাবি, দেশটির খাইবার পাখতুনখোয়া জেলার পেশোয়ার খাইবার টিচিং হাসপাতালে এ গেমের ফাঁদে পড়ে কমপক্ষে পাঁচ তরুণ-তরুণী ভর্তি হয়েছেন। যার মধ্যে ৪ জন ছেলে ও একজন মেয়ে।

হাসপাতালটির ডাক্তার ড. ইমরান জানান, ব্লু হোয়েল গেমের চ্যালেঞ্জগুলো জিততে গিয়ে তারা আহত হয় পড়ে তাদের হাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা হতাশায় ভুগতেছিল।

প্রসঙ্গত, ব্লু হোয়েল গেমটির থাবায় এ পর্যন্ত রাশিয়ায় ১৫০ জনের মতো মারা গেছে। এছাড়া ইউরোপ ও অন্যান্য দেশে প্রায় ৫০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

উল্লেখ্য, ‘ব্লু হোয়েল’ প্রযুক্তি নির্ভর সুইসাইড গেম। যার বাংলা করলে অর্থ দাঁড়ায় ‘নীল তিমি’। গেমটির নির্মাতার নাম ফিলিপ বুদেকিন। ফিলিপ রাশিয়ার নাগরিক। তার ডাকনাম ফিলিপ ফক্স।

১৮ বছর বয়সে ফিলিপ ২০১৩ সালে প্রথমে ব্লু হোয়েল নিয়ে কাজ শুরু করেন। প্রথমে তিনি সামাজিকমাধ্যমে ‘এফ৫৭’ নামে একটি গ্রুপ তৈরি করেন। এরপর ৫ বছরের জন্য একটি পরিকল্পনা করেন। গেমের ৫০টি ধাপ রয়েছে। মৃত্যুই হচ্ছে এর শেষ ধাপ।

তাই এই ব্লু হোয়েল গেম থেকে বাঁচতে এ সম্পর্কিত কোনও লিংক আসলে তা এড়িয়ে চলা। সমাজের তরুণ ছেলে-মেয়ে থেকে শুরু করে সব বয়সীদের মাঝে এই গেমের ক্ষতিকারক দিকগুলো তুলে ধরা। তাদের সচেতন করা প্রয়োজন।

সূত্র: সামাটিভি